জিয়ার ঘোষণায় উদ্বুদ্ধ মানুষ, ঘোষণা বঙ্গবন্ধুর পক্ষে

এপ্রিল ৩০, ২০১৪ ৬:৩৭ অপরাহ্ণ

21734স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ‘মেজর জিয়াউর রহমানের নিশ্চিতভাবে ওই সময়ের ঘোষণায় পুরো জাতি উদ্বুদ্ধ হয়েছিল’ বলে মন্তব্য করেছেন নাগরিক ঐক্যর আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না।

তিনি বলেন, এ কথা অস্বীকার করা যাবে না। কিন্তু, সেই মানুষটিকে নিয়ে বিতর্ক করা হচ্ছে। তবে তার সেই ঘোষণা ছিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পক্ষে।

তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর রাষ্ট্রপতি হওয়া নিয়ে বিতর্ক হতে পারে না। তবে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তাই নিয়ে বিতর্ক করছেন। এ নিয়ে দলের মধ্যে জট সৃষ্টি হচ্ছে।

বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ‘বিপন্ন গণতন্ত্র, লাঞ্ছিত মানবতা: বাংলাদেশের ভবিষ্যত’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

বাংলাদেশ সিভিল রাইটস সোসাইটি (বিসিআরএস) আয়োজিত এ গোলটেবিল বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন বিসিআরএসের কো-অর্ডিনেটর ফজলুল হক ভূঁইয়া রানা।

এতে আলোচক হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) একাংশের মহাসচিব এম এ আজিজ, মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপক সাংবাদিক মীর আশফাকুজ্জাম,এফবিসিসিআইয়ের সাবেক চেয়ারম্যান আফজাল হোসেন, শিক্ষক-কর্মচারী ঐক্য জোটের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মো. জাকির হোসেন প্রমুখ।

মান্না বলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সনতো বলেননি জিয়াই প্রথম রাষ্ট্রপতি! তাহলে এটা নিয়ে কেন এত বিতর্ক!

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুই আমাদের স্বাধীনতার মূল নায়ক। কিন্তু, যাই করেছেন, তাই সঠিক, এটা সত্য নয়।

জাতীয় সংসদের বর্তমান বিরোধীদল সম্পর্কে মাহমুদুর রহমান বলেন, ৫ জানুয়ারি কোনো নির্বাচনই হয়নি। তাই, যেটা আছে, ওটা কোনো সংসদ নয়। ওখানে কোনো বিরোধীদলও নেই।

তিনি বলেন, ৫ জানুয়ারি গণতন্ত্রের বুকে ছুরি বসিয়ে দেওয়া হলো। গণতন্ত্র জীবিত না মৃত তা আইসিইউতে নিয়ে পরীক্ষা করা প্রয়োজন।

বিএনপির সমালোচনা করে তিনি বলেন, গণতন্ত্র রক্ষায় তারা কি ভূমিকা পালন করছে?

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সমালোচনা করে নাগরিক ঐক্যের নেতা মান্না বলেন, তিনি (শেখ হাসিনা) সারাদেশে কেঁদে বলছেন, আমার পরিবারকে হত্যা করা হয়েছে। আজ তার দলেরই এক নেতা নজরুল ইসলামকে হত্যা করা হলো। তার বিচার কী হলো! তার পরিবারও তো বিচারের জন্য কেঁদে বেড়াচ্ছে। তাই, আমি শুধু নজরুল ইসলাম নয়, বিএনপির কোনো কর্মী মারা গেলেও বলবো। এমনকি জামায়াতের বেলাতেও।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ-বিএনপির কাছে গণতন্ত্র নিরাপদ নয়। তাই, আমি বিকল্প শক্তির ডাক দিয়েছি। আজ বিএনপি যদি নির্বাচনে জয়ী হয়, তাহলে বিমান বন্দরে প্রথমেই আসবেন তারেক রহমান। এসেই নির্যাতনের প্রতিশোধ নিতে চাইবেন। দেশ আবারও অস্থিতিশীল হয়ে উঠবে।

মান্না বলেন, তাজউদ্দিন আহমদের মেয়ে যদি জামায়াতের টাকা খেয়ে বই লিখতে পারেন, তাহলে আওয়ামী লীগের কী আছে!

বর্তমান সরকার টাম পূর্ণ করতে পারবে কিনা সন্দেহ আছে বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, এটা শুধু আমার কথা নয়, পুরো দেশের মানুষের মধ্যেই এই সন্দেহ বিরাজ করছে।

বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) একাংশের মহাসচিব এম এ আজিজ বলেন, দেশ স্বাধীনের পর এ পর্যন্ত একজন সাংবাদিক হত্যারও বিচার হয়নি।

মূল প্রবন্ধ উপস্থাপক সাংবাদিক মীর আশফাকুজ্জাম আইন ও সালিশ কেন্দ্রের এক জরিপ তুলে ধরে বলেন, ২০১০ থেকে ২০১৪ সালের মার্চ পর্যন্ত ২৬৮ জন অপহৃত হয়েছেন।

এর মধ্যে মাত্র ৪৩ জনের লাশ উদ্ধার হয়েছে। পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়েছে ১৪ জনকে। বাকি ১৮৭ জনের এখন পর্যন্ত কোনো হদিস নেই।

Share on Facebook
সম্পাদক মন্ডলীর চেয়ারম্যান ॥ মোঃ দেলোয়ার হুসেন শরীফ, সম্পাদক ॥ আনোয়ার হোসেন
উপজেলা মোড়, টেনিস কোর্ট রোড, ৫৯ মাষ্টার বাড়ি, ঢাকা।
সংবাদঃ ০১৭১১৩২৪৬৬০ বিজ্ঞাপনঃ ০১৯১১২৪৫৬১৬
ই-মেইল ॥ news@playingnews.com
খেলা পাগল মানুষদের কথা চিন্তা করেই দেশী-বিদেশী সকল ...
খেলাধূলার খবর