অবশেষে শুরু হচ্ছে বিওএ’র বিশেষ প্রশিক্ষণ

ডিসেম্বর ২৪, ২০১৩ ৬:৫০ পূর্বাহ্ণ

ছয় আন্তর্জাতিক ক্রীড়া আসরকে সামনে রেখে অবশেষে খেলোয়াড়দের দীর্ঘমেয়াদী বিশেষ প্রশিক্ষণ শুরু করছে বাংলাদেশ অলিম্পিক এ্যাসোসিয়েশন (বিওএ)।

গত এপ্রিলে অষ্টম বাংলাদেশ গেমস শেষ হওয়ার পরই বিভিন্ন ক্রীড়া ডিসিপ্লিনের খেলোয়াড়দের দীর্ঘমেয়াদী বিশেষ প্রশিক্ষণের পরিকল্পনার ঘোষণা দিয়েছিলো বিওএ। তখন বিওএ মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা জানিয়েছিলেন,চলতি বছর শুরু করতে না পারলেও আগামী বছরের সূচনাতেই দীর্ঘমেয়াদী বিশেষ প্রশিক্ষণ শুরু করবে বিওএ। তিনি তার কথা রেখেছেন। আগামী ১০ জানুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে এই দীর্ঘমেয়াদী বিশেষ প্রশিক্ষণ।
আগামী বছরের ২৩ জুলাই স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোতে শুরু হচ্ছে বিশতম কমনওয়েলথ গেমস। শেষ হবে ৩ আগস্ট। অপরদিকে ১৯ সেপ্টেম্বরে দক্ষিণ কোরিয়ার ইনচনে বসছে এশিয়ান গেমসের ১৭তম আসর। ৪ অক্টোবর এ আসর শেষ হবে। এই দুই গেমসকে সামনে রেখে জানুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহে দীর্ঘমেয়াদী বিশেষ প্রশিক্ষণ শুরু হলেও আরো চারটি গেমস রয়েছে এ প্রশিক্ষণের আওতায়। এগুলো হচ্ছে- সাউথ এশিয়ান গেমস, ইন্দো -বাংলাদেশ গেমস, এশিয়ান বিচ গেমস ও ইয়ুথ এশিয়ান গেমস। বিওএ মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা বলেন, ‘২২ ডিসেম্বর কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় দীর্ঘমেয়াদী বিশেষ প্রশিক্ষণের দিনক্ষণ চুড়ান্ত হয়েছে। আগামী ১০ জানুয়ারি আমরা এ প্রশিক্ষণ শুরু করার নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এ লক্ষ্যে বিওএ’র ট্রেনিং এন্ড ডেভলোপমেন্ট কমিটি প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।’
এর আগে ছয় আন্তজার্তিক আসরকে সামনে রেখে দীর্ঘমেয়াদী বিশেষ প্রশিক্ষণের জন্য খেলোয়াড় বাছাই করে বিওএ’র ট্রেনিং এন্ড ডেভলোপমেন্ট কমিটি। শুরুতে ৯ ডিসিপ্লিনের প্রায় ৫০জন খেলোয়াড় বাছাই করা হয়। পরবর্তীতে শ্যুটিং, তায়েকোয়ানডো, বক্সিং ও আরচ্যারি এই চার ডিসিপ্লিনের মোট ২৬ জনকে দীর্ঘমেয়াদী প্রশিক্ষণের জন্য চূড়ান্ত করা হয়। এই প্রশিক্ষণের জন্য এরই মধ্যে প্রায় তিন কোটি টাকার বাজেট বিওএ’র কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় অনুমোদিত হয়।
বিওএ’র সূত্রে জানা যায়, অনুশীলনের জন্য প্রায় তিন কোটি টাকা বাজেটের পুরোটাই স্পন্সর থেকে সংগ্রহের চেষ্টা করা হচ্ছে। বিওএ’র সভাপতি সেনাপ্রধান জেনারেল ইকবাল করিম ভূঁইয়া পুরো বিষয়টির সার্বিক তত্ত্বাবধান করছেন। ২২ ডিসেম্বরের সভায় স্পন্সর সংগ্রহের জন্য দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বিওএ’র সহ-সভাপতি ও স্কয়ার গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান অঞ্জন চৌধুরী পিন্টুকে। এরই মধ্যে কমনওয়েলথ গেমস আয়োজকরা অংশগ্রহণ ও প্রস্তুতির জন্য বিওএ’কে একলাখ মার্কিন ডলার দিয়েছে। তবে এ অর্থ কমনওয়েলথ গেমসের জন্যই বরাদ্দ থাকছে বলে জানা গেছে। এরই মধ্যে কমনওয়েলথ গেমসে কোন কোন ডিসিপ্লিনে বাংলাদেশ অংশগ্রহণ করবে তা চূড়ান্ত করতে বিওএ’র ট্রেনিং এন্ড ডেভলোপমেন্ট কমিটি চেয়ারম্যান আশিকুর রহমান মিকুকে দায়িত্ব দিয়েছেন মহাসচিব।

বাছাইকৃত প্রশিক্ষণার্থীদের ঢাকা সেনানিবাসে প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। তাদের আবাসনের ব্যবস্থাও করা হয়েছে সেনানিবাসে। শুধুমাত্র শ্যুটারদের গুলশানের জাতীয় শ্যুটিং রেঞ্জে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। সেনানিবাসে অ্যাথলেটদের থাকা-খাওয়া ও প্রশিক্ষনের বিষয়দি তদারকির দায়িত্বে থাকবেন সেনাবাহিনীর প্রশিক্ষণ পরিচালক।

Share on Facebook
This site demo ॥ Content Copy Paste॥ Playing News
News Desk
E-maill ॥ news@playingnews.com
খেলা পাগল মানুষদের কথা চিন্তা করেই দেশী-বিদেশী সকল ...
খেলাধূলার খবর