বক্সিংয়ে ইউক্রেন কোচ

জানুয়ারি ৮, ২০১৪ ১২:৩৯ অপরাহ্ণ
বাংলাদেশ বক্সিং ফেডারেশনের উদ্যোগে গত বছর তেমন কোনো টুর্নামেন্ট না হলেও অক্টোবরে ইউক্রেনে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বক্সার আল আমিন কোয়ালিফাই করেন ওয়ার্ল্ড জুনিয়র বক্সিং চ্যাম্পিয়নশীপে। বিভিন্ন দেশের ছয়জন প্রতিযোগিকে হারিয়ে বিশ্ব বক্সিংয়ে সুযোগ পান আল আমিন। এই অর্জনে খুশি হয়ে এবং ভবিষ্যতে পদকের আশায় বিওএ বক্সিংকে অন্তর্ভুক্ত করে দীর্ঘ মেয়াদি প্রশিক্ষন ক্যাটাগরিতে। সে সুবাদে ১০ জানুয়ারি সকাল ছ‘টায় বাংলাদেশের মাটিতে পা রাখছেন ইউক্রেনের বক্সিং প্রশিক্ষক আলেকজান্ডার হুরেনকো। ইউক্রেনের ভিন্নিসিয়া জন্ম নেয়া ৫৬ বছর বয়সী হুরেনকো ১৯৭৫-১৯৭৭ পর্যন্ত সোভিয়েত ইউনিয়নের ফোর্সে ছিলেন। ১৯৮০ সালে খেলোয়াড়ি জীবন শেষে কোচিং প্রফেশনে আসেন ১৯৮২ সালে। ইউক্রেন জাতীয় দলের নিয়মিত কোচ ছিলেন তিন বছর।
বক্সিং ফেডারেশনের সেক্রেটারি আব্দুল কুদ্দুস খান জানান, ‘উন্নত প্রশিক্ষন পেলে বাংলাদেশের বক্সিং অবশ্যই ভালো করবে। আমাদের ফান্ডে এত টাকা নেই যে বিদেশী কোনো কোচ এনে প্রশিক্ষন কোর্স করাবো। বিওএ সহযোগিতা করছে। তাই সাহস করে সাপোটিং দেয়ার কাজগুলো করছি। বিশ্ব জুনিয়র বক্সিংয়ে বাংলাদেশের দলনেতা হয়ে ইউক্রেন গিয়েছেন সেনা ক্রীড়া নিয়ন্ত্রন বোর্ডের সভাপতি ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এমএ হামিদ। তখন তিনিই কোচ হুরেনকোর সঙ্গে কথা বলেন। নানা রকম আলাপ আলোচনার পর মাসিক ৫ হাজার ইউএস ডলারের বিনিময়ে হুরেনকো বাংলাদেশে আসতে রাজি হন। এখানে আসার পর আমরা চেস্টা করবো বেতন কিছু কম করার জন্য।’
অস্থির রাজনৈতিক পরিস্থিতিতেও বসে না থেকে ক্রীড়ার উন্নয়নে কাজ করতে চায় বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন (বিওএ)। তাদের তত্ত্ববধানে থেকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ভালো ফলাফলের লক্ষ্যে ১০ জানুয়ারি বাংলাদেশ সেনানিবাসে কয়েকটি ডিসিপ্লিনের চলবে দীর্ঘ মেয়াদি প্রশিক্ষন। ইনচন এশিয়ান গেমস ও গ্ল¬াসগো কমনওয়েলথ গেমসকে লক্ষ্য ধরে চার ডিসিপ্লি¬নে বিশেষ প্রশিক্ষণ ক্যাম্প শুরু করতে যাচ্ছে তারা। আরচারি, বক্সিং, তায়কোয়ানদো ও শুটিংয়ের ২৪ অ্যাথলেট পাচ্ছেন ঢাকা সেনানিবাসে নিবিড় প্রশিক্ষণের সুযোগ। প্রয়োজনে পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে অ্যাথলেট পরিবর্তন হবে।
অ্যাথলেটদের উন্নত প্রশিক্ষণ নিশ্চিত করতে চার ডিসিপ্লিনেই আনা হচ্ছে বিদেশি কোচ। বক্সিং ছাড়াও শুটিং ও অ্যারচারির কোরিয়ান কোচ আসবেন যথাক্রমে ১৫ জানুয়ারি ও ১ ফেব্রুয়ারি। তাদের বেতন হবে ৩ হাজার ডলার করে। আর তায়কোয়ানডোর বিদেশি কোচ অক্টোবর নাগাদ  আসার সম্ভবনা রয়েছে । স্থানীয় কোচদের বেতন ২০ হাজার টাকা, অ্যাথলেটরা পাবেন ১৫ হাজার টাকা করে এবং ৩ হাজার টাকা ওয়াশিং ভাতা। যা বহন করবে বিওএ।
Share on Facebook
This site demo ॥ Content Copy Paste॥ Playing News
News Desk
E-maill ॥ news@playingnews.com
খেলা পাগল মানুষদের কথা চিন্তা করেই দেশী-বিদেশী সকল ...
খেলাধূলার খবর